১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৩রা রমজান, ১৪৪২ হিজরি

ঘটমান সংবাদ এ স্বাগতম।  সাথেই থাকুন।
বাড়ি বিজনেস অর্থ ও বিনিয়োগ বাংলাদেশে সুস্থ মুদ্রাস্ফীতি চলমান রয়েছে

বাংলাদেশে সুস্থ মুদ্রাস্ফীতি চলমান রয়েছে

পরিসংখ্যান ও তথ্য বিভাগের সচিব মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী বলেন, সরকারের বিভিন্ন সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণের কারণে বেশ কিছুদিন যাবৎ বাংলাদেশে একটি সুস্থ মুদ্রাস্ফীতি চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, যদি অর্থনীতিতে মুদ্রাস্ফীতি না থাকে, তাহলে এটি একটি ভাল এবং সুস্থ ও গতিশীল অর্থনীতি হবে না, যার জন্য বাংলাদেশে সবসময় একটি নির্দিষ্ট স্তরে মুদ্রাস্ফীতির থাকা প্রয়োজন।

বিবিএস মিলনায়তনে বাংলাদেশ উন্নয়ন সাংবাদিক ফোরামের (ডিজেএফবি) সদস্যদের জন্য বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) আয়োজিত ‘স্টেকহোল্ডার (মিডিয়া) কনসালটেশন ওয়ার্কশপ’ শীর্ষক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিসংখ্যান ও তথ্য বিভাগের সচিব এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিবিএস এর মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, তথ্য অধিদপ্তরের (পিআইডি) প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার এবং বাংলাদেশ বেতারের উপ-মহাপরিচালক এ এস এম জাহিদ। অনুষ্ঠানে বিবিএস-এর উপ-মহাপরিচালক ড. মো. শাহাদাত হোসেন জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধন (এনপিআর) নিয়ে একটি উপস্থাপনা করেন। এছাড়া বিবিএসের উপ-মহাপরিচালক ঘোষ সুব্রত স্বাগত বক্তব্য রাখেন এবং বিবিএসের পরিচালক আবদুল কাদের মিয়া ‘কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স (সিপিআই) : মূল্যস্ফীতির হার এবং মজুরি হার সূচক (ডাব্লিউআরআই) : বাংলাদেশে অনুশীলন’ এর মূলভাব উপস্থাপনা করেন।

কনজ্যুমার প্রাইস ইনডেস্ক (সিপিআই)-এর প্রসঙ্গ তুলে ইয়ামিন বলেন, যদি অর্থনীতিতে মুদ্রাস্ফীতি প্রত্যাশিত অবস্থায় না থাকে, তাহলে সে ধরনের কোন বিনিয়োগও আসবে না। তিনি বলেন, মুদ্রাস্ফীতির হার যদি পাঁচ শতাংশের নিচে নেমে যায় বা ৫ শতাংশেরও বেশি বেড়ে যায় তবে অর্থনীতির জন্য সেটাও ভালো নয়।

সচিব বলেন, এই কোভিড-১৯ আমলেই একটি জরিপ চালিয়ে দেখা গেছে যে মহামারীর চেয়ে দেশে বিভিন্ন রোগে মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেশি।

জরিপের ফলাফল উদ্ধৃত করে তিনি উল্লেখ করেন, জরিপ চলাকালীন বাংলাদেশে প্রায় ৫ হাজার ২ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মারা যায়, কিন্তু বিভিন্ন হৃদরোগে সংক্রান্ত রোগে মারা যায় প্রায় ১ লক্ষ ৮০ হাজার মানুষ।

বিবিএস-এর মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম বলেন, আমরা আশা করি দেশে ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার (এনপিআর) বাস্তবায়ন করা হবে এবং এর মাধ্যমে ভুল-ভ্রান্তি অনেক কমিয়ে আনা যাবে।

Print Friendly, PDF & Email

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

সর্বশেষ খবর

Recent Comments

Print Friendly, PDF & Email
Bengali BN English EN